কানাডায় বাংলাদেশি আইনজীবীর যৌন-ভিডিও ব্যবহার করে প্রেমিকাকে গর্ভপাতে বাধ্য করার প্রচেষ্টা

কানাডায় বাংলাদেশি আইনজীবীর যৌন-ভিডিও ব্যবহার করে প্রেমিকাকে গর্ভপাতে বাধ্য করার প্রচেষ্টা

প্রাক্তন প্রেমিকাকে গর্ভপাত করানোর ব্যাপারে বাধ্য করতে স্ক্র্যাবরোয়ের একজন বাংলাদেশি আইনজীবীর যৌন ভিডিও ব্যবহার করার হুমকি।

ওমর হাসান আল জাহিদ (৩১) গত মাসে স্কাররোরোয়ের অন্টারিও কোর্ট অফ জাস্টিসের বিচারপতি মরিয়ম ব্লুমেনফেল্ডের সামনে গত বছর তার 30 বছর বয়সী প্রেমিকার বিরুদ্ধে ফৌজদারি হয়রানির জন্য দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন।

পূর্ববর্তী বাড়িওয়ালার সহায়তায়, প্রাক্তন প্রেমিকা ২০১৮ সালের ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে আল জাহিদের সাথে সাক্ষাত করেছিলেন – ক্রাউন অ্যাটর্নি আলেকজান্দ্রা রুওয়েল।

এরপর দুজনই অন্তরঙ্গ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। কিছুদিন পর, প্রাক্তন প্রেমিকাকে তার বাসা থেকে উচ্ছেদ করা হয় এবং আল জাহিদ তার নতুন বাড়িওয়ালা হয়ে যান।

এরপর একদিন আইনজীবী ওমর হাসান আল জাহিদ প্রেমিকার সম্মতিতে যৌন ক্রিয়াকলাপ এর ভিডিও রেকর্ড করেন এবং তার নিজস্ব সেলফোনে ক্রিয়াকলাপ এর ফটোও তোলেন।

৫ এপ্রিল ২০১৯ সালে, প্রাক্তন প্রেমিকা গর্ভাবস্থার পরীক্ষা করাতে গেলে রেজাল্ট ইতিবাচক আসে।

তখন ওমর জাহিদ প্রেমিকাকে গর্ভপাত করানোর জন্য প্ররাচনা দিতে লাগলেন। প্রেমিকা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন যে শিশুটির হৃদস্পন্দন শুরু হয়ে গেছে এবং সে এটি হত্যা করতে পারবে না।

এরপর ওমর জাহিদ প্রেমিকাকে অসংখ্য টেক্সট মেসেজ দিতে লাগলেন এবং অনুরোধ করতে লাগলেন, যাতে তিনি না জানান যে শিশুটি তার।

তিনি বেশ কয়েকবার টেক্সট বার্তা প্রেরণ করে মহিলাকে গর্ভপাত করানোর জন্য প্ররাচনা দিতে লাগলেন। আর না করলে যৌন ক্রিয়াকলাপ এর ভিডিও রেকর্ড র বিষয়টি সামনে নিয়ে আসবেন বলে হুমকি দিতে লাগলেন।

কিন্তু প্রেমিকা গর্ভপাত করবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন। এবং পুরো ঘটনাটি 41 ডিভিশনের পুলিশকে জানালেন।

আসছে ৩০ এপ্রিল আল জাহিদ আবার আদালতে হাজিরা দিবেন।

তার আইনজীবী আরিফ হুসেন এবং ক্রাউন যৌথভাবে আদালতে একটি সাজা দেওয়ার প্রস্তাব করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

সূত্রঃ টরোন্ট সান

Loading…

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Loading…

অনুভূতি জানানঃ

Facebook fan page

Leave a Reply

Your email address will not be published.