লুৎফর রহমান রিটনের ছড়া

লুৎফর রহমান রিটনের ছড়া

বন্ধু মানে দূর আকাশের হীরকদ্যুতি তারা

উৎসর্গ : অগ্নিবর্ণা হাসান সাবাবা, যে মেয়েটি ওর পিতাকে ‘বন্ধু’ নামে ডাকে।

bondhu

ন্ধু মানে মস্ত আকাশ, আকাশ ভরা নীল।

বন্ধু মানে উড়ন্ত আর দুরন্ত গাঙচিল।

বন্ধু মানে ঝুম বৃষ্টি বন্ধু দখিন হাওয়া।

বন্ধু মানে অল্প খাবার দু’জন মিলে খাওয়া।

 

বন্ধু মানে শরৎ কালের শুভ্র মেঘের ভেলা।

বন্ধু মানে ঝগড়া ভুলে আবার শুরু খেলা।

বন্ধু মানে সব কিছুতেই ভীষণ বাড়াবাড়ি।

বন্ধু মানে তর্কাতর্কি কিংবা মারামারি।

 

বন্ধু মানে জড়িয়ে ধরা হঠাৎ আচম্বিতে।

তার দু’চোখে নিজকে দেখা নয়ন-আর্শিতে।

বন্ধু মানে যৌথ হাঁটা একটুও না থামা।

এক ব্রান্ডের জিন্স-জুতো আর একই রকম জামা।

 

বন্ধু মানে এক আসরে অভিন্ন গান শেখা

বন্ধু মানে পরীক্ষাতে টুকলি করে লেখা।

বন্ধু মানে সমান সমান নয় উঁচু নয় নিচু।

সারা জীবন ছায়া হয়ে রয় সে পিছু পিছু।

 

বিপদ এলে সবাই পালায় বন্ধু দাঁড়ায় পাশে।

নিজের ক্ষতি হয় যদি হোক, বন্ধু ছুটে আসে।

বন্ধু মানে উতল নদীর আছড়ে পড়া ঢেউ।

বন্ধু পারে জীবন দিতে আর পারে না কেউ।

 

বন্ধু মানে দূর আকাশের হীরকদ্যুতি তারা।

খুব সহজেই সব পাওয়া যায়, কেবল বন্ধু ছাড়া।

বন্ধু মানে অকারণেই হাহা হোহো হাসি।

ভালোবাসি বন্ধু তোকে বড্ড ভালোবাসি।

Loading…

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Loading…

অনুভূতি জানানঃ

Facebook fan page

Leave a Reply

Your email address will not be published.