এগারো দিনেই ডাযাবেটিস নির্মূল!

Filed under: ফিচার,স্বাস্হ্য কথা |

diabetes[
নিজের চেষ্টায়, শুধু মাত্র ডায়েট কন্ট্রোলের মাধ্যমে মাত্র এগারো দিনেই ডায়াবেটিস থেকে মুক্ত লাভ করেছেন বৃটেনের রিচার্ড ডটি (৫৯)। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি যে, ডটি খুব অল্প ক্যালোরিসম্পন্ন খাদ্য গ্রহণ করে ১১ দিনেই ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পেয়েছেন। বিষয়টিকে বিশ্বাসযোগ্য করে তোলার জন্য ডটি তার ডায়েট চার্টটিও দিয়েছেন। তার সে খাদ্য তালিকা অত্যন্ত ছোট।

এ কথা সকলেরই জানা যে, ডায়াবেটিস এমন একটি রোগ যা কখনও সম্পূর্ণ নির্মূল হয় না। এমন প্রচলিত ধারণাকে পাল্টে দিয়েছেন বলে রিচার্ড দাবী করেন।

মানুষ তার শরীর থেকে অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে বিভিন্ন ডায়েট পরিকল্পনা করে। তবে ডটি প্রায় অভুক্ত থাকার ডায়েটেই নিরোগ শরীর লাভ করেছেন।

ডটি লম্বায় ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি ও তার ওজন ৬৭ কেজি। রুটিনমাফিক স্বাস্থ্য-পরীক্ষা করান তিনি। শেষবার যখন পরীক্ষা করালেন, ফলাফলে রীতিমতো চমকে উঠলেন তিনি। রিপোর্টে জানা গেলো, টাইপ-২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। তার বংশে কারও ডায়াবেটিস ছিল না। তার ওজনও অতিরিক্ত নয়।

রিচার্ড ডটির এ সাফল্য নিঃসন্দেহে বিশ্বের কোটি কোটি ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষকে নতুন পথের সন্ধান দেবে। আশাহত ডায়াবেটিক রোগীদের মনে আশার আরো জ্বেলে দেবে। ডটির পথ অনুসরণ করে আক্রান্তরা এ ঘাতকব্যাধি থেকে মুক্তি লাভ করবে।

রিচার্ড ডটির এ সাফল্য নিঃসন্দেহে বিশ্বের কোটি কোটি ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষকে নতুন পথের সন্ধান দেবে। আশাহত ডায়াবেটিক রোগীদের মনে আশার আরো জ্বেলে দেবে। ডটির পথ অনুসরণ করে আক্রান্তরা এ ঘাতকব্যাধি থেকে মুক্তি লাভ করবে।

তিনি সবসময় সুষম ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস মেনে চলেন। জীবনে কখনও সিগারেট স্পর্শ করেননি। এতোসব সত্ত্বেও ডায়াবেটিস ধরা পড়লে, যে চমকে তো উঠবেই। রিচার্ড ডটিরও তাই হলো। তিনি রীতিমতো কিংকর্তব্যবিমূঢ়। তবে তিনি দমে গেলেন না; কিংবা থমকে দাঁড়ালেন না। ডায়াবেটিস থেকে মুক্তি পেতে তিনি শুরু করলেন তার নিরন্তর প্রচেষ্টা।

ইন্টারনেটে সমাধান খুঁজলেন।

এক সময় নিউক্যাসল ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীদের তৈরি করা একটি স্বল্প ক্যালোরিসম্পন্ন ডায়েটের সন্ধান পেলেন তিনি। ওই বিজ্ঞানীদের দাবি, এ ডায়েট অনুসরণে ৮ সপ্তাহেই ডায়াবেটিস সম্পূর্ণ নির্মূল সম্ভব। ওই ডায়েটের মধ্যে ছিল ৬০০ ক্যালোরির মিল্ক শেক ও স্যুপ এবং ২০০ ক্যালোরির সবজি। আর দিনে ৩ লিটার পানি পান। আর এ সংবাদটি পরিবেশন করেছে বার্তা সংস্থা এএনআই।

ডটি জানান, একটা স্যুপ, দুটো শেক আর সবুজ শাক-সবজির খেয়ে বেঁচে থাকাটাকে প্রথম দিকে বেশ দুঃসাধ্য কাজ মনে হয়েছিল তার কাছে। তবে তিনি হাল ছাড়লেন না। টানা ১১ দিন এ ডায়েট অনুসরণ করলেন। অকল্পনীয় হলেও সত্যি! তার রক্তে সুগারের পরিমাণ স্বাভাবিক হয়ে গেলো। অর্থাৎ, নন-ডায়াবেটিক লেভেলে নেমে আসলো ব্লাড সুগার। এ সময়টায় রিচার্ডের ওজন কমেছিল। এরপর তিনি ফের ডায়াবেটিস পরীক্ষা করে দেখলেন তার শরীর থেকে ডায়াবেটিস সম্পূর্ণ নির্মূল হয়েছে। দীর্ঘদিন পরও তিনি একেবারেই ডায়াবেটিস মুক্ত। আর ওজনটাকে তিনি ৫৭ কেজির মধ্যেই ধরে রেখেছেন।

রিচার্ড ডটির এ সাফল্য নিঃসন্দেহে বিশ্বের কোটি কোটি ডায়াবেটিস আক্রান্ত মানুষকে নতুন পথের সন্ধান দেবে। আশাহত ডায়াবেটিক রোগীদের মনে আশার আরো জ্বেলে দেবে। ডটির পথ অনুসরণ করে আক্রান্তরা এ ঘাতকব্যাধি থেকে মুক্তি লাভ করবে।

-সময়ের কথা ডেস্ক

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।