রানু বেগমরা ঝানু জিনিস…..

Filed under: চয়ন আরার খোলা বয়ান,ফিচার |

চয়ন

(নির্ধারিত কারণে এ সংখ্যায় ‘চয়ন আরার খোলা বয়ান’ নতুন কিস্তি ছাপানো সম্ভব হলো না। আগামী  সংখ্যায় চয়ন আরা নিয়ে আসছেন নতুন অ্যটোম বোম ‘ফেসবুকে ফজিলা’!- চোখ রাখুন সময়ের কথা’র আসছে সংখ্যায়। এ সংখ্যায় গত সংখ্যার লেখাটিই রাখা হলো।-নির্বাহী সম্পাদক)

 

রানু বেগমরা ঝানু জিনিস…

 

‘ও আমার রসিয়া বন্ধুরে, তুমি কেনো আমার পায়ের নূপুর হইবার চাও?’, বারান্দায় বসে আমি বেশ সুর লাগিয়ে পুরনো দিনের সেই জনপ্রিয় গানের উপরের অংশটুকু গুণ গুণ করে  গাইছিলাম। আমার পাশেই বসেছিলো ফুপাতো বোন কমলা। আমার গান শুনে সে হেসে জানতে চাইলো, ‘গানটাতে বলা হয়েছে,…’তুমি কেনো কোমড়ের বিছা হইলা না’, কিন্তু তুমি বলছো,…’তুমি কেনো আমার পায়ের নূপুর হইবার চাও?’ কেনো আপু?

আমি দুষ্টমিভরা হাসি ছড়িয়ে বললাম, ‘জানিস, সেদিন অপূর্ব রাস্তায় আমার পথ আগলে ধরে কি বলেছে?’

অপূর্ব হচ্ছে আমাদের মহল্লার এক ল্যাঞ্জাকাটা হিরু। চেহারা-সুরুতে শাহরুখ ফেল! বারো মাস চোখে সানগ্লাস! আমার যাতায়াতের পথে আল্লার ত্রিশটা দিন তাহার হিরুমার্কা বদনখানা তিনি প্রদর্শণ করবেনই। সেও শুধু বদন প্রদর্শণ করলেও চলতো, কিন্তু আমাকে দে‌খা মাত্রই তার শুরু হয়ে যায় বানর-নৃত্য! ক্ষণে ক্ষণে দু’হাতের আঙ্গুলগুলো সঞ্চালিত হতে থাকে সালমান কাট চুলে, আর দশ ছটাইক্কা শরীরটাতে খেলে যায় পদ্মার ঢেউ! আমার বড্ড হাসি পায়।

‘তোমাকে অপূর্ব ভাই কি বলেছে?’ কমলার কন্ঠে রাজ্যের আগ্রহ।

উত্তরে বললাম,’অভূতপূর্ব কোনো কথা নয়; ঐ আর দশটা ল্যাঞ্জাকাটার মতোই, আই লাভ ইউ।’

‘এটুকুই!’ কমলা যেনো হতাশ হলো, ‘আর কিছু বলেনি?’

চয়ন====বললাম, ‘বলেছে’, হাতে হাত কচলিয়ে, দেহটাকে শাপের মতো মোড়াতে মোড়াতে বলেছে, ‘চয়ন, তোমার চরণ ধরে বলি, আমাকে প্রেমিক রূপে বরণ করে নাও।’

‘তুমি কি বললে?’

আমি পেয়ারসে তার কাছে জানতে চাইলাম,’তুমি আমার জন্য কি করতে পারবে?’

উত্তরে সে বললো, ‘সব কিছু করতে পারবো।’

আমি তাকে বললাম, ‘পারবে কি আমার সুইটময় ললিপপ চেহারার মডেলমার্কা ছবির বিলবোর্ড দিয়ে গোটা ঢাকা শহর ভরিয়ে দিতে?’

অপূর্ব ঢোক গিলে বললো, ‘কিন্তু ঢাকা শহরের সব বিলবোর্ড তো সরকার দখল করে নিয়ে নিজেদের উন্নয়নের প্রচার চালাচ্ছে!’

এ সময় কমলা বলে উঠলো, ‘জানো আপু, শুনলাম, যারা বিলবোর্ডগুলো লাগিয়েছে, তারাই আবার সেসব সরিয়ে ফেলতে শুরু করেছে।’ এরপর কমলা ঠোঁটে বাঁকা হাসি খেলিয়ে বললো, ‘সেই তো মল খসালো, মাঝখান থেকে লোক হাসালো!’ এবার প্রসঙ্গটা পাল্টিয়ে কমলা বলে উঠলো, ‘বাদ দাও ওসব সরকারী প্যাচাল। বলো অপূর্ব সাহেব আর কি বললো?’

কমলার প্রশ্নের উত্তরে বললাম, ‘আমার কথা শুনে অপূর্ব কাঁদো কাঁদো কন্ঠে বললো, আমার কি আর বিলবোর্ড লাগানোর মতো অতো শক্তি-সামর্থ আছে! প্লিজ, আমাকে নিরাস কোরো না। আই লাভ ইউ।’

ছ্যাবলাটার বেহায়াপনা দেখে আমি বেশ রাগত কন্ঠে বললাম, ‘রাস্তা-ঘাটে এমন ছোটলোকদের মতো আচার-আচরণ করবেন না প্লিজ। আমাকে যেতে দিন।’

সে আমার পথ রোধ করে বললো, ‘যতো ইচ্ছে বকা-বাজি করো, যতো ইচ্ছে নোংরা কথা বলো, আমি কিছু মনে করবো না। তবুও একবার শুধু বলো, তুমি আমাকে তোমার চরণে ঠাঁই দেবে? প্রয়োজনে আমি তোমার দুধে-আলতা পা দুটো দু’বেলা পরম যত্নের সাথে ধু”য়ে দেবো।’ এরপর সে আবরো বললো, ‘বকো ইচ্ছে মতো বকো।’

আমি বললাম, ‘আমার মতো সুন্দরী সভ্য মেয়েদের মুখ থেকে এর চাইতে আর বেশী কোনো নোংরা কথা বেরুবে না। নারীদের মুখে নোংরা কথা শোনার বুঝি খুব খায়েশ?’ মুচকি হেসে বললাম, ‘এতোই যদি নোংরা কথা শোনার ইচ্ছে তবে আমার পেছনে হ্যাবলা-ছ্যাবলার মতো ঘুরঘুর না করে, সংসদ দখল কইরা বইয়া থাকা রানু বেগম, শাম্মি আকতারের লাহান মহিলা এমপিগো পিছে লাইন লাগান। অরা ভি জব্বর কইবার পারে, চুদুরবুদুর থাইক্যা শুরু কইরা চু…..হগলকিছু দাগাবাজি গলায় কইবার পারে। গাইলপাড়ানি গার্লফ্রেন্ড ভি মিলবো, লগে রাজনৈতিক ফায়দাও ভি লুটবার পারবেন।’ একটু থেমে আরো একটু রঙ চড়িয়ে বললাম,’তয় একখান সমেস্যা আছে, আটা-ময়দার পুরান বস্তা…অনেক ওজন হইবো।’

আমার কথা শুনে কমলা দাঁত কেলিয়ে বললো, ‘রানু বেগমরা ঝানু জিনিস, তাদের কাছে হাত্তি-ঘোড়া হয় ফিনিস, আর তুমি নাকি পাঠাতে চাও ঐ মাসুম পোলারে! না আপু, তোমার বিবেক-বুদ্ধি ঠিক নাই।’

আমিও হাসি ছড়িয়ে বললাম, ‘আরে দূর, আমি তো বলার জন্য বলেছি। আমি তো জানি, অপূর্বদের মতো ট্যাকখালি জমিদারদের রাস্তার মোড়ে খাড়াইয়া বান্দর নাচের লগে দিয়া আমার মতোন সুন্দরীদের ‘আই লাভ ইউ, লাভ ইউ’ কইতে কইতেই জীবন কাবার হইয়া যাইবো।’

কমলা এবার কন্ঠে দরদ ঝরিয়ে বললো, ‘ছিঃ আপু, ওভাবে বলো না। তোমাদের মতো সুন্দরীরা ওদের জন্য নাইবা থাকলে, আমরা তো আছি। ছেলেটা কিন্তু সত্যি সত্যি দেখতে বেশ!’

আমি হতভম্বের মতো কমলার মুখে দিকে তাকিয়ে থাকলাম।

কমলা হাসতে হাসতে বললো, ‘এরপর অপুর্ব’র সাথে দেখা হলে বোলো, ও যেনো এবার আমার পথ রোধ করে দাঁড়ায়……।’

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।