রিয়ালেই থাকছেন রোনাল্ডো

রিয়ালেই থাকছেন রোনাল্ডো

cristiano_ronaldo01[1]

 নুতন বছরের শুরুতেই বোমা ফাটান ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডো। রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগীজ সুপারস্টার জানুয়ারীর প্রথম সপ্তাহে এক সাক্ষাতকারে বলেন, তিনি নাকি রিয়ালের সঙ্গে চুক্তি নবায়নে আগ্রহী নন! ওই ঘটনায় ফের ক্রিস্টিয়ানোর মাদ্রিদ ছাড়ার গুঞ্জন রটে। তবে সপ্তাহ দুই পরেই এমন সম্ভাবনা নাকচ করে দেন ২৮ বছর বয়সী তারকা ফরোয়ার্র্ড। সে সময় সাক্ষাতকারে পর্তুগাল অধিনায়ক ঘোষণার সুরে বলেছিলেন, ‘আমি রিয়াল মাদ্রিদেই থাকছি।’

প্রতিবেদন :  জাহিদুল আলম জয়

 

কিন্তু প্রেক্ষাপট আবারও পাল্টে গেল। মৌসুমে রিয়ালকে প্রত্যাশিত সাফল্য এনে দিতে ব্যর্থ হওয়া, কোচ জোসে মরিনহোর বিদায়ের পর আবারও গুঞ্জন রটে সান্টিয়াগো বার্নাব্যু ছাড়ছেন রোনাল্ডো। মাস তিন আগে এমন কথা বেশ জোরেশোরেই উচ্চারিত হতে থাকে। অবাক করা ব্যাপার হচ্ছে, জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহে বেশ কয়েকবার রোনাল্ডো বলেন, ‘আমি ইংলিশ ফুটবলের ভক্ত। ইংলিশ ফুটবলকে আমি ভীষণভাবে মিস করি। হয়ত ম্যানইউতে ফিরতেও পারি।’ এমন বলার পর আবার ভোল পাল্টান সি আর সেভেন। এবার চৌকষ তারকা বলেন, ‘আমি রিয়ালেই ভাল আছি। ম্যানইউতে যাচ্ছিনা!’

রিয়ালে খেলতে পেরে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছেন রোনাল্ডো। সাক্ষাতকারে তিনি বলেন,  ‘সত্যিই খুব ভাল আছি রিয়াল মাদ্রিদে। যদিও ইংলিশ ফুটবল, ম্যানইউকে খুব মিস করি।’ সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে খুব তাড়াতাড়ি ফিরবেন, এমন গুঞ্জন উড়িয়ে দেন পর্তুগাল তারকা। সাম্প্রতিক গুজব দূর করার জন্য রিয়াল জানায়, রোনাল্ডোর সঙ্গে এখনও তাদের দু’বছরের চুক্তি রয়েছে। তবে, ইউনাউটেডের সাবেক কর্মকর্তারা জানান, রোনাল্ডোর জন্য আমাদের দরজা খোলা আছে। কিন্তু তাদের হয়ত হতাশই হতে হচ্ছে। অবশ্য রোনাল্ডো ওল্ডট্রাফোর্ডকে মিস করেন সবসময়। সিঙ্গাপুর সফরে সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, ‘আমি ইংলিশ ফুটবলকে খুব মিস করি। যখন আমি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ছিলাম তা ছিল আমার জীবনের শ্রেষ্ঠ বছর। সবাই জানে এই ক্লাবটি আমার হৃদয়ে আছে। সত্যি, সত্যি খুব অনুভব করছি।’ এরপরই রিয়াল প্রসঙ্গ খোলাসা করে বলেন, ‘কিন্তু এখন আমি স্পেনে আছি। এখানে খেলে খুব আনন্দিত। জীবনের একটি অংশ এখানে, কিন্তু ভবিষ্যত জানিনা। আমি স্প্যানিশ লীগে থাকতে পেরে সত্যিই খুশি।’

rolando

২০০৮ সালের ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার আগেই জানিয়েছেন, চুক্তির মেয়াদ শেষ না হওয়া থাকতে চান রিয়াল মাদ্রিদেই। রিয়ালের সঙ্গে রোনাল্ডোর চুক্তি রয়েছে ২০১৫ সালের জুন পর্যন্ত। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে নানাবিধ কারণে স্প্যানিশ মিডিয়া দাবি করে, রিয়ালে তেমন সুখে নেই রোনাল্ডো। এ কারণে শুরু হওয়ার অপেক্ষায় থাকা মৌসুমে তিনি ক্লাবটি ত্যাগ করতে পারেন। প্যারিসের সেন্ট জার্মেইনের সঙ্গে রোনাল্ডোর যোগাযোগ হয়েছে বলেও এর আগে শোনা গেছে। পাশাপাশি ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেও ফেরার সম্ভাবনা তো আছেই। কিন্তু জানুয়ারীতে ফিফা ডট কমকে দেয়া সাক্ষাতকারে এসব সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দেন রোনাল্ডো। তিনি খোলাসা করে বলেন, ‘আমি রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে চুক্তি শেষ করতে চাই। এ বিষয়ে আমি পরিস্কার। এরপর কি হবে তা ভবিষ্যতই বলে দেবে।’ ছয়মাস পর আবারও  একই কথার পুনরাবৃত্তি করেছেন পর্তুগীজ প্রাণভোমরা।

২০০৯ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছেড়ে রেকর্ড পারিশ্রমিকে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন রোনাল্ডো। এরপর দলের প্রাণভোমরায় পরিণত হন। রিয়ালে রোনাল্ডো সুখী নন, বিষয়টি প্রথম আলোচনায় আসে ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে। ওই সময় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে গুরুত্বের সঙ্গে পরিবেশিত হয়, রিয়াল মাদ্রিদ ভাল লাগছে না ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর। পর্তুগাল অধিনায়ক নাকি বেতনাদি নিয়ে গোস্বা প্রকাশ করেন! কিছুদিন পর অবশ্য বিষয়টি অস্বীকার করেন সাবেক ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা। ক্রিস্টিয়ানো অস্বীকার করলেও বিষয়টি নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনা হতে থাকে। সময়ের পরিক্রমায় অবশ্য এ নিয়ে গুঞ্জন থেমেও যায়। প্রসঙ্গটি ফের আলোচনায় আসে রোনাল্ডোর আরেকটি সাক্ষাতকারে। সাবেক ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলার ২০১৩ সালের শুরুতে এক সাক্ষাতকারে রিয়াল মাদ্রিদের সঙ্গে চুক্তি নবায়নে অনাগ্রহ প্রকাশ করেন।

কিন্তু সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর দলটি আরও বেশি সময় তারকা এই ফুটবলারকে নিজেদের তাবুতে রাখতে চায়। এ কারণেই রিয়াল মাদ্রিদ রোনাল্ডোর সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর চিন্তাভাবনা কথা শোনা যায়। এক্ষেত্রে ২০১৮ সাল পর্যন্ত রোনাল্ডোর সঙ্গে রিয়াল চুক্তি করতে আগ্রহী বলে জানা গিয়েছিল। অবশ্য রোনাল্ডো নাকি এ প্রস্তাবে রাজি নন! এমন সংবাদই রটেছিল। শেষ পর্যন্ত অবশ্য রিয়ালের সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়েনি রোনাল্ডোর। এ কারণেই হয়ত ফের স্পেন ছাড়ার গুঞ্জন রটে। তবে বরাবরের মতো তা অস্বীকার করেছেন রোনাল্ডো।

zajoy1@gmail.com

Loading…

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Loading…

অনুভূতি জানানঃ

Facebook fan page

Leave a Reply

Your email address will not be published.