|

টরেন্টোতে গ্রাজুয়েটদের মিলনমেলা

tor

মজমাট আয়োজনে টরন্টোতে বসবাসরত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের  গ্রাজুয়েটদের সংগঠন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফোরাম কানাডার বার্ষিক পিকনিক অনুষ্ঠিত হলো গত ২৫ আগষ্ট টরন্টোর থমসন পার্কে। বৃহত্তর টরন্টোর বিভিন্নস্থানে বসবাসরত গ্রাজুয়েটরা তাদের পরিবার নিয়ে সকাল থেকেই হাজির হন পিকনিক স্পটে। গ্রাজুয়েটদরে স্বাগত জানান পিকনিক কমিটির আহবায়ক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিন্টু।  পিকনিকের আয়োজন শুরু হয় কফি, টিম বিট, চানাচুর-মুড়ি পরিবেশনের মধ্য দিয়ে। দিনব্যাপি অনুষ্ঠিত নানা খেলাধুলার ভেতরে উল্লেখযোগ্য ছিলো মহিলাদের পিলো পাসিং, ফ্রিজ ড্যান্স,  কলা অনুষদ বনাম বিজ্ঞান অনুষদের ফুটবল প্রতিযোগিতাসহ আরো মজার মজার খেলা। পুরো আয়োজনের সমন্বয়ের দায়িত্বে ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি আব্দুল হালিম মিয়া। অভ্যর্থনায় ছিলেন সুমী রহমান ও আনজুমান রোজী। দুপুরে ছিলো পোলাও, চিকেন রোষ্ট, মাটন কারি, মাটন ঘন্ট, ভেজিটেবলসহ নানা সুস্বাদু খাবারের ভোজ। পরক্ষণেই ছিলো মিস্টি, তরমুজ ও সফট ড্রিংকস । এই পর্বের তদারকির দায়িত্বে ছিলেন ড.আব্দুল মতিন, আবুল কালাম আজাদ, ফিরোজুর রহমান, আব্দুল কাদের মিলু, ফেরদাউস সুলতানা, মমিন খান, গোলাম কবির, মোহাম্মদ ফরিদউদ্দীন, কামরুজ্জামান, জীবনানন্দ রায়, তানিয়া সোহেলি, সুব্রত পুরো, ফরিদুল ইসলাম, নাজমা আক্তার, দীলিপ কুমার দত্ত, মাসুদ কবীর ও আনোয়ারুল কবির প্রমুখ। খেলাধুলা পর্ব পরিচালনা করেন সংগঠনের সহ-সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক উদ্দীন আহমেদ।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন সংগঠনের সাংস্কৃতিক সম্পাদক সুমী রহমান। আর সংগঠনের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আহমেদ হোসেনের উপস্থাপনায় সর্বশেষ ছিলো র‌্যাফেল ড্র। বিভিন্ন ক্যাটাগরির মোট ৫৬ টি পুরস্কার জিতে নেন গ্রাজুয়েট পরিবারের সদস্যরা। গ্রাজুয়েটদের বাইরে ফোরামের শুভাকাঙ্খিরাও যোগ দেন এই আয়োজনে। উপস্থিত অতিথিদের প্রত্যেকেই এই আয়োজনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। সংগঠনের সভাপতি ব্যারিষ্টার কামরুল হাফিজ ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফ হক সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে পিকনিকের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। সারাদিন হৈ হল্লা ও আনন্দধ্বনির মধ্যদিয়ে শেষ হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফোরাম কানাডার এই ভিন্নধর্মী পিকনিকের।

-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন





টুইটারে আমরা

পূর্বের সংখ্যা