|

ফেসবুক থেকে ……. ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৩

পপপপপ

নপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আমরা বন্ধুরা বিভিন্ন বিষয়ের ওপর কতোই না মতামত দিয়ে থাকি, বিভিন্ন জনের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে কতোই না মন্তব্য করে থাকি। কেউ কেউ আবার নানা বিষয়ের ওপর ছবি আপলোড করি। সবাই যে সব কথা ভারো লিখেন, বা ভালো ছবি দিয়ে তাকেন এমনটি নয়। ইদানিং এমনও লক্ষ্য করা যায়, কোনো কোনো বন্ধু এমন ছবি ড়িয়ে থাকেন, বা এমন সব ভাষায় মতামত বা মন্তব্য করে তাকে যা চোখে দেখার বা মুখে আনার মতো নয়। আমার সেই সব ছবি ও মতামত দাতাকে নিরুৎসাহিত করে, সুন্দর মার্জিত ভাষা সমৃদ্ধ রুচিশীল ছবি, মতামত এ মন্তব্য দাতাদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করি। আর সেইসব সুন্দর ছবি ও লে‌খা তেকে এ বিভাগে সময়ের কথা পাঠকদের জন্য শেয়ার করবো করবো আমাদের নিজস্ব বাছাইকুত সেরা মতামত, মন্তব্য ও ছবি। এ ছাড়া পাঠক আপনিও পাঠাতে পারেন আপনার দৃষ্টি আপনার ফেসবুক বুন্ধুদের সেরা মতামত, মন্তব্য ও ছবি, আমরা আপনার নাম ও ছবিসহ তা সযত্নে প্রকাশ করবো। আশা করি পাঠকদের বিভাগটি ভালো লাগবে……..

 

এ সংখ্যার ফান

বববববব

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

২.

ময়মনসিংহ থেকে ঢাকায় এসে এক লোক

হরতাল সমর্থকদের হামলার শিকার হন……

এরপর…………

– বাই মারুইন কেরে? কইবান তো, আমার দুষ কি?

– হরতালে বের হইছস কেন? তুই হরতাল অবমাননাকারি।

– আমারে আগে কইছুইন না কেরে আউজগা হরতাল? আমি কি হুনছি নাহি? হুনলে ১০ সের বাইগুন লইয়া ঢাহা আইয়ি? আমার দুষ নাই। আমারে ছাইড়া দেইন।

– ঐ! আমরা কি ঘরে ঘরে গিয়া কমু যে হরতাল। তোর ঘরে টিভি নাই?

– আকিজ বিড়ি কিনবাম হেই খ্যামতা নাই গতরো, আফনে কইন টিবি’র কতা। টিবি কতদুরা দেখছিলাম শুক্কুরবারো। বাংলা ছবি। ছবির মইদ্দেও তো কইছুইন না … যে “অমুক দিন হরতাল আফনারা গরও বইয়া থাহুইনজে”।

– যা এখান থেকে যা ভাগ। বেয়াদপ !

– ইন্ডিয়ান চুলের আলাপ করুইন ম্যায়া ?!! হরতাল দিছুইন আফনেরা, আর আমারে কইন বেয়াদ্দব। আমরার বাইত যাইনজে; হরতাল ছাড়াই হুতাইলাবাম। ইতা বাহাদুর দেহা আছে !

 

সময়ের কথা’র  ‘ফেসবুক সংবাদ’

(এ বিভাগে সময়ের কথার পাঠকরাও পাঠাতে পারেন ফেসবুক সংক্রান্ত যে কোনো সংবাদ ছবি)

 

Mark Zuckerberg

 

ফেসবুকে আস্থা হারাচ্ছেন মানুষ: জুকেরবার্গ

 ইন্টারনেটে মার্কিন সরকারের নজরদারির ঘটনায় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলির উপর থেকে আস্থা হারাচ্ছে সাধারণ মানুষ। বৃহস্পতিবার এই অভিযোগ করলেন খোদ ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকেরবার্গ। জুকেরবার্গের আশঙ্কা, ইন্টারনেটে নজরদারির ঘটনায় মার্কিন গোয়েন্দাদের বিরুদ্ধে সাধারণের যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে এবং তাতে মার্কিন সরকারের যা প্রতিক্রিয়া, তার জেরে বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে আমেরিকা। সম্প্রতি প্রাক্তন মার্কিন গোয়েন্দা এডওয়ার্ড স্নোডেন ইন্টারনেটে মার্কিন সরকারের আড়ি পাতার ঘটনা ফাঁস করে দেন। জানা যায়, ফেসবুক, জি-মেলে সাধারণ মানুষের কথোপকথনের উপরে নজর রাখছে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন। জুকেরবার্গ অবশ্য তখনই দাবি করেছিলেন, এর সঙ্গে জুকেরবার্গ কোনও ভাবেই জড়িত নন। গোয়েন্দাদের আড়ি পাতার খবর তিনি জানতেন না।

 

 

 

 

 

 

 

সে রা  ভি ডি ও  শে য়া র:

মাউন্ট এভারেস্ট নিয়ে ডকুমেন্টারী:

শেয়ারটি দিয়েছে: তানভীর মোকাম্মেল, কানাডা থেকে।

মাউন্ট এভারেষ্ট হিমালয় পর্বতমালায় অবস্থিত সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে শীর্ষবিন্দুর উচ্চতার হিসেবে বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ। সমুদ্রপৃষ্ঠ হতে এর উচ্চতা ৮,৮৪৮ মিটার (২৯,০২৯ ফুট) । এটি হিমালয় পর্বতমালার একটি অংশ, এশিয়ার নেপাল এবং চীনের সীমানার মধ্যে এর অবস্থান। ১৮৫৬ সালে ভারতের বৃহৎ ত্রিকোণমিতিক জরিপ (Great Trigonometric Survey) প্রকল্প সর্বপ্রথম এভারেস্টের উচ্চতা পরিমাপ করে ২৯,০০২ ফুট (৮,৮৪০ মি), যদিও এ সময় এভারেস্ট পরিচিত ছিল Peak-XV (১৫ নং চূড়া) নামে। এভারেস্ট পর্বতচূড়ার আনুষ্ঠানিক নামকরণ করা রয়েল জিওগ্রাফিক্যাল সোসাইটি কর্তৃক, ভারতে তৎকালীন ব্রিটিশ জরিপ পরিচালক (British Surveyor General) এন্ড্রু ওয়াহ্’র সুপারিশক্রমে। ওয়াহ্ কোনো প্রচলিত আঞ্চলিক নাম প্রস্তাব করতে পারেননি, কারণ সে সময় নেপাল ও তিব্বত বিদেশীদের জন্যে নিষিদ্ধ ছিল, যদিও তিব্বতীরা একে বহু শত বছর ধরে চোমোলুংমা বলে আসছিল।

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন





টুইটারে আমরা

পূর্বের সংখ্যা