সিবিসিতে লোমহর্ষক ‘মেড ইন বাংলাদেশ’!

Filed under: এক্সক্লুসিভ,ফিচার |

Camera_TV_-_Radio-

কানাডার জাতীয় সম্প্রচার মাধ্যম সিবিসি (কানাডিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশন) টেলিভিশন বাংলাদেশের গার্মেন্ট শিল্পের সংকটাবস্থার উপর তাদের ‘ফিফথ স্টেট’ অনুষ্ঠানে এক লোমহর্ষক প্রামাণ্যচিত্র: ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ প্রচার করেছে। এতে মাসব্যাপী প্রচেষ্টায় রানা প্লাজার ধস কে কেন্দ্র করে দেশটির সামগ্রিক গার্মেন্ট শিল্পে বিদ্যমান শ্রমিক নিরাপত্তা, নিষ্পেষণ ও মালিকপক্ষের মিথ্যাচারিতার আলো-আধারি দিকগুলো তুলে ধরার পাশাপাশি এতোদিন কানাডিয়ান গার্মেন্ট ভোক্তাদের পণ্য বিক্রেতারা যা জানতে দেননি তা উন্মোচন করেছে। গত

১২ অক্টোবর টরন্টো সময় রাত পৌনে ৯টায় পনের মিনিটের সেই প্রামাণ্যচিত্রটি সম্প্রচার করা হয়। সেটির সার-সংক্ষেপ হচ্ছে- আমাদের পরিধেয় গার্মেন্ট পণ্যের অধিকাংশেই রয়েছে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ লেবেল। গত ২৪ এপ্রিল গার্মেন্ট ভবন ধসের ঘটনায় এ বিষয়ক তথ্য জানাজানি হয়ে গেলে জানা যায় কারা সেই পণ্য উৎপাদন করছে। রানা প্লাজার ধ্বংস¯তূপের মাঝে কানাডাগামী পণ্যের সন্ধান মেলে। ওই মর্মান্তিক ট্রেজেডিতে কানাডার কোম্পানীগুলো তাদের প্রতিক্রিয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করে।

সিবিসি টেলিভিশনের ‘ফিফথ স্টেট’ অনুষ্ঠানের মার্ক কেলী বাংলাদেশে গিয়ে নিরাপত্তাহীন পরিবেশে কানাডার জন্য গার্মেন্ট পণ্য উৎপাদিত হচ্ছে এমন শ্রমিকদের সন্ধান পান। তারপর রানা প্লাজার কারান্তরীণ ফ্যাক্টরি মালিকের সাক্ষাতকারে কানাডার সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদি মাল্টি-মিলিয়ন ডলারের বাণিজ্যের যোগসূত্রটি উন্মোচন করেন।

সিবিসি’র ওয়েবসাইটে প্রামাণ্যচিত্রটি তুলে ধারার পাশাপাশি দর্শক-পাঠকের প্রতিক্রিয়া জানার জন্য সেখানে তারান্নুম কমলিনী’র একটি নিবন্ধ সংযোজন করা হয়। তাতে ‘এ বার্থ অব এ টি-সার্ট’, ‘হু রিয়্যালি মেড দ্য সার্ট’, ‘এ কানাডিয়ান ফাস্ট ফ্যাশন আইকন কামস টু বাংলাদেশ’, ‘আর অডিটস এনাফ’, ‘এ টিনেজড সাইভাবর স্পিকস’, ‘দ্য ম্যান ইনচার্জ’ এবং ‘এ মনুমেন্ট টু গ্রিড’ উপশিরোনামযুক্ত বিষয়ে আলোকপাত করা হয়েছে।

একইভাবে গত ১২ অক্টোবর কানাডার রক্ষণশীল জাতীয় দৈনিক গ্লোব অ্যান্ড মেইল তাদের উইকএন্ড প্রচ্ছদ নিবন্ধ ‘দ্য ট্রু কস্ট অব এ টি-সার্ট’ প্রকাশ করে। একই সঙ্গে তাদের ‘রিপোর্ট অন বিজনেস’-এ ফাস্ট ফ্যাশনের পুলিশিং অনুসন্ধানে মাসাধিককালে চীন থেকে বাংলাদেশ এবং বিক্রেতাদের গার্মেন্ট পণ্যের সাজানো তাক – সবটার বর্ণনাই তাতে তুলে ধরেছে।

সূত্র : দ্য বেঙ্গলি টাইমস ডটকম

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।