|

কবিতা / ফারুক নওয়াজ

ফারুক ভাই

মাদের দিন সূর্যরঙিন আলোঝলমল সোনালি সকালগুলো

মাঠের গন্ধ পাটের গন্ধ দাপানো দুপুর উড়োনো পথের ধুলো

তাতানো রোদের ক্লান্তি ঘোচাতে হাতছানি দিতো বিশাল বটের ছায়া

মায়ের শাড়ির পাড়ের মতন কাছে টেনে নিতো রুপোলি নদীর মায়া।

 

রবিশস্যের ফাঁকা মাঠে রোজ বিকেল হলেই ঘুড়ি-ঘুড়ি খেলা শুরু

সন্ধ্যা পেরুলে ঘরে ফিরে যেতে বাবার শাষানি ভেবে বুক দুরুদুরু

আমাদের দিন কখনো স্বাধীন কখনোবা  ছিলো বাবার শাসনে বাঁধা

অঙ্কে-ভূগোলে অবহেলা বলে স্যারের বকুনি, আস্ত একটা গাধা!

 

দুষ্টু বোনের মিষ্টি চিমটি, অমনি চেঁচিয়ে মাথায় তুলেছি বাড়ি

ঢেঁকিশাল থেকে মায়ের হাঁকারি, দাঁড়া তোকে আজ দেখাছি হতচ্ছাড়ি!

আমাদের দিন সোনামোড়া দিন, আদরে শাসনে মাখা সেই দিনগুলো,

খর্করে দিনে পাগল বাতাসে উড়ে উড়ে যেতো কাপাসগাছের তুলো।

শীতের সকালে খোলাছাদে বসে মুড়ি খেতে খেতে রোদ পোহানোর মজা;

আমাদের দিন  সুখি অমলিন ভাবিনি কখনো কেবা রাজা কেবা প্রজা।

 

সেই দিনগুলো সেদিনের মতো এই দিনগুলো হয়তো রঙিন আরো;

তবু সাদামাটা সেদিনের সাথে এদিনের কেউ তুলনা করতে পারো!

 

-০৫.০৯.২০১৩

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন





টুইটারে আমরা

পূর্বের সংখ্যা