|

সাফে ব্যর্থতার কারণ…..

সাফ

ফুটবল সবসময়ই বাংলার গর্ব। বাঙ্গালী জাতির প্রানের খেলা। আর যার ফলে বাঙ্গালীর চিন্তা-চেতনায় আর যাই হোক ফুটবলের রংধনু সব সময়ই খেলা করে। একই কারণে এ খেলার সাফল্য-ব্যর্থতার প্রশ্নটিও বাঙ্গালীর হৃদয়ের সুত্রে গাঁথা। ফুটবলের জয় যেমন আমাদের মনে আনন্দের বন্যা বইয়ে দেয় তেমনি অপ্রত্যাশিত পরাজয় আমাদের আশাহত করে। আমরা বেদনাহত হই। সাফ ফুটবলের পরাজয় তারই আর এক প্রতিফলন।

এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, সাফ ফুটবলকে ঘিরে সব সময়ই আমাদের স্বপ্ন দীর্ঘতর। আর এটা না হবারও তো কোনো কারণ দেখি না। আমাদের ফুটবল এ শ্রেষ্ঠত্বের সে যোগ্যতাও রাখে। কিন্তু নানা কারণে, অবহেলা, অমনোযোগিতায় আমরা পিছিয়ে পড়ি। যেমন এবার পড়লাম।

সাফ ফুটবলের ব্যর্থতাকে কখনো ছোট করে দেখার মতো নয়। বাংলাদেশ সাফ ফুটবলে সবসময়েই ফেভারিট দল হিসেবে পরিচত। এবারও তেমনটিই ছিলো। আমি মনে করি, এ আসরে পাকিস্তান ও নেপালের সঙ্গে মোকাবেলা করা খুব একটা কঠিন কাজ ছিল না।

আমার দৃষ্টিতে এবারের আসরে ব্যর্থতার নানা কারণ আছে; তবে সব চাইতে বড় কারণ হচ্ছে, বেষ্ট এলিভেন সিলেকশনে দুর্বলতা, ফিটনেস ও সুদূর প্রসারি পরিকল্পনার অভাব। বর্তমান কোচ এক সময় আমাদের দলকে তো ‘আন্ডার ডগ টিম’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। যা খুবেই লজ্জাজনক। একই সাথে দুঃখজনকও বটে। সেরকম হলেতো আমরা যে কাউকে দিয়েই টিম গঠন করতে পারি।

অন্যদিকে এবারে টিম সিলেকশন, খেলোয়াড় সিলেকশনের গুরুদায়িত্ব যাদের ওপর ছিলো, তাদের ব্যর্থতাকেও কোনোভাবেই খাটো করে দেখা যাবে না। তাদেরও ব্যর্থতা রয়েছে।

আর একটি ব্যাপার এখানে লক্ষ্যনীয় যে, আমরা খেলোয়াড়দের ফিটনেস,  তাদের ইনজুরি ও খেলোয়াড় পরিবর্তনের ব্যাপারে উদাসিন ছিলাম।

আমরা খেলয়াড়দের দ্বারা মাঠে কাজ আদায় করে নিতে পারিনি। অথচ আমরা প্রস্তুতি ম্যাচ যে কম খেলেছি তা নয়। তবে যাই হোক, সাফ গেমসে যে ব্যার্থ হয়েছি সেটা যেমন অস্বীকার করার উপায় নেই; তেমনি আগামী দিনের ফুটবলের মাঠে যাতে আমরা স্বরবে জেগে উঠতে পারি তার পরিচয় অমাদেরকে দিতে হবে। গ্রহণ করতে হবে সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা।

ঘন ঘন ম্যাচ খেলে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে। আমি আবারো বলবো, সুদূর প্রসারী পরিকল্পনার কথা। যেখানে তৃণমূল পর্যায়ে ফুটবলকে নিয়ে গেলেই চলবে না। যাচাই বাছাই করে উপরে নিয়ে আসতে হবে সত্যিকার, মেধা সম্পন্ন, উদ্যোমি তরুনদের। অভিজ্ঞতা সম্পন্ন কোচকে সিলেকশন করে দলের ভার দিতে হবে। সেক্ষেত্রেও দিতে হবে দীর্ঘ সময়। অন্যথায় নেপাল, পাকিস্তান, মালদ্বীপ ও ভারতের মতো দল থেকে পিছিয়ে পরবো সহজেই।

অনুলিখনঃ শাহরিয়ার কবির তুষার

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন





টুইটারে আমরা

পূর্বের সংখ্যা