ওগো বিদেশিনী, কেন বাংলা গান গাও?

Filed under: ফিচার,সময়ের লাইফস্টাইল |

 

…….আমাদের বাঙ্গালীদের জন্য আনন্দের সংবাদ হচ্ছে, এই বিদেশী কন্ঠশিল্পী একদিন হঠাৎ করেই বাংলা গানের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন। শুধু তা্ই নয়, এ পর্যন্ত তিনি বাঙ্গালী কমিউনিটির বেশ কিছু অনুষ্ঠান ও কনসার্টে বাংলা গান গেয়ে স্থানীয় বাঙ্গালীদের মন জয় করেছেন। তার কন্ঠে বাংলা গানের চমৎকার পরিবেশনা মুগ্ধ করেছে সঙ্গীত পিপাসুদের……….

263474_10150709136950595_8335164_n[1]ভিলমা আভিলা। বর্তমানে কানাডার ক্যুইবেক সঙ্গীতাঙ্গনে অত্যন্ত আ‌লোচিত একটি নাম। ২৯ বছর বয়স্ক এই শিল্পী নিজস্ব কন্ঠের মাধুরি দিয়ে জয় করে নিয়েছেন এ অঞ্চলের সঙ্গীত পিপাসুদের মন। গান করেন পপ, রক, ফোক। পানামাতে জন্ম নেয়া আভিলা বয়ফ্রেন্ডের আহবানে ২০০৪ সালে কানাডায় পাড়ি জমান। সেই থেকে আ‌ছেন ক্যুইবেকের মন্ট্রিয়ল সিটিতে। ভবিষ্যতে একজন বড় শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে বেড়ে ওঠা আভিলা মন্ট্রিয়লে আসার পর সঙ্গীতের ওপর পড়াশোনা শুরু করেন। দুই বছর স্থানীয় প্রসান সঙ্গীত একাডেমীতে সঙ্গীতের বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষা গ্রহণ করেন। এ সময় তিনি গান গাওয়া, লেখা এবং সুর করার সাথে নাচেরও তালিম নেন। এর মাঝে ধীরে ধীরে আত্মপ্রকাশ করতে থাকেন গানের পাখি রূপে। জয় করে নিতে থাকেন সঙ্গীত পিপাসুদের মন। আর আমাদের বাঙ্গালীদের জন্য আনন্দের সংবাদ হচ্ছে, এই বিদেশিনী কন্ঠশিল্পী একদিন হঠাৎ করেই বাংলা গানের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন। শুধু তা্ই নয়, এ পর্যন্ত তিনি বাঙ্গালী কমিউনিটির বেশ কিছু অনুষ্ঠান ও কনসার্টে বাংলা গান গেয়ে স্থানীয় বাঙ্গালীদের মন জয় করেছেন। তার কন্ঠে বাংলা গানের চমৎকার পরিবেশনা মুগ্ধ করেছে সঙ্গীত পিপাসুদের।

আমরা সময়ের কথা’র পক্ষ থেকে তার কাছে জানতে চেয়েছি, আপনি কেন বাংলা গানের প্রতি আকৃষ্ট হলেন?

avilaউত্তরে তিনি বলেছেন, ‘আসলে ছোটবেলা থেকেই আমি এশিয়ান সঙ্গীতের প্রতি দুর্বল। বিশেষ করে ভারতীয় সঙ্গীত। হিন্দি গান আমার বেশ ভালো লাগতো। ধীরে ধীরে আমি ভারতীয় সঙ্গীত সম্পর্কে জানার চেষ্টা করি। এ সময় বাংলা গানের সাথেও আমার পরিচয় ঘটে। ভা‌লো লাগে। একটু একটু করে দুর্বলতাও অনুভব করতে থাকি এই সঙ্গীতের প্রতি। মন্ট্রিয়লে আসার পর স্থানীয় বাঙ্গালী কমিউনিটির সংগঠন ধুম এন্টারটেইনমেন্টের বাংলা মেলা’র অনুষ্টানে আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হয় সঙ্গীত পরিবেশনের জন্য। আমি এ সময় সংগঠনের কর্ণধার সোহেল মিয়ার কাছে ইংরেজী গানের পাশাপাশি একটি বাংলা গান গাওয়ারও আগ্রহ প্রকাশ করি। পরে তার সহযোগিতায় আমি সেখানে একটি বাংলা গান গাই। দর্শক-স্রোতারা আমার গান বেশ পছন্দ করেন। আমি এতে আরো বেশী অনুপ্রাণীত হই বাংলা গানের প্রতি।’ তিনি বলেন, ‘ইদানিং প্রায় আমি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাংলা গান গেয়ে থাকি। সত্যি কথা বলতে কি, এ সঙ্গীতের প্রতি এখন আমার একটা হৃদয়ের টানও তৈরী হয়ে গেছে।’

নিজের স্বপ্ন সম্পর্কে আভিরা বলেন, অবশ্যই অনেক বড় একজন সঙ্গীত শিল্পী হবার স্বপ্ন দেখি, তবে কোনোদিন যদি বলিউডের কোনো ছবিতে গান করার সুযোগ পাই, সেদিন আমার সঙ্গীত জীবন সার্থক হবে।

বিশ্ব সঙ্গীতে আভি‌লার প্রিয় শিল্পী শাকিরা, সেলন ডিওন, লারা ফেজিয়ান প্রমুখ।

প্রতিবেদন : সোহেল মিয়া

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।