কানিজ আলমাসের বিশেষ রচনা ‘প্রথম সৌরভ’

Filed under: ফিচার,সময়ের লাইফস্টাইল |

parfum_৩

 

হৃদয়ে লেখো নাম, সে নাম রয়ে যাবে…। মান্না দের এই গান নানা কারণেই আমাকে আপ্লুত করে। কারণ, কোনো কিছু একবার মনের মধ্যে গেঁথে গেলে তা মুছে ফেলা অসম্ভব। বিষয়টা জীবনের প্রথম কোনো ভালো লাগার হলে তো কথাই থাকে না। এ নিয়ে কিছু বলতে গেলে আমরা প্রথম প্রেমের উদাহরণই দিয়ে থাকি। কিন্তু সুগন্ধিও মানুষের মন ও জীবনকে দোলা দিয়ে যায়।

 

কো কো শ্যানেল তো বলেছেনই, যে নারী সুগন্ধি মাখে না, তার কোনো ভবিষ্যৎই নেই। আমি অবশ্য এভাবে ষোলো আনাই মিছে ভাবতে চাই না। তবে জীবনে, যাপনে এর প্রভাবকেও অস্বীকার করি না। পারফিউম ছাড়া নিজেকে আমার কখনোই পরিপাটি মনে হয় না। এ কথারই সাক্ষাৎ অনুরণন দেখি সি জয়বেল সির এই মন্তব্যে, ইউ আর নেভার ফুললি ড্রেসড উইদাউট পারফিউম। এ জন্য পোশাকের বাইরে সুগন্ধি আমার পছন্দ-তালিকার শুরুতেই থাকে।

যা হোক, আমাদের দেশে সুগন্ধি কেনার সুযোগ আগের চেয়ে বাড়লেও সীমাবদ্ধতা রয়েই গেছে। ফলে বাইরে গেলেই আমি বড় বড় স্টোরের পারফিউম সেকশনে ঢুঁ মারি। এটা আমার একটা নেশা বলা যেতে পারে।

মনে আছে, ছোটবেলায় মায়ের পারফিউমের বোতলগুলোর দিকে লোভাতুর হয়ে তাকিয়ে থাকতাম। আমাদের ছোঁয়া নিষেধ। যেন এক নিষিদ্ধ জগৎ। কিছুটা বড় হয়ে প্রথম ছুঁয়ে দেখার সুযোগ হয় শ্যানেল নাম্বার ফাইভের বোতল। তাও আম্মার পারমিশনে। কী সিম্পল

কানিজ আলমাস

কানিজ আলমাস

অথচ এলিগ্যান্ট। সেই যে প্রেমে পড়া। এর আকর্ষণ আজও ভুলতে পারি না। এ জন্য শ্যানেল ফাইভ আমার সব সময়েই প্রথম পছন্দ। এই ভালো লাগা আমার অবসেশনে পরিণত হয়েছে। তবে নতুন কোনো পারফিউম পেলে এবং তার সৌরভ মনে ধরলে আমি কিনে নিই। নতুনে মেতে থাকি কিছুদিন। তারপর ঠিকই আবার পুরনো প্রিয় পারফিউমের কথা মনে পড়ে যায়। বিশ্বস্ত আমি ফিরে যাই তার কাছে।

সন্দেহ নেই, পারফিউম যে কাউকে কনফিডেন্ট করে। এর সিলেকশনটাও জরুরি। কারণ, আপনার উপস্থিতি অন্যকে বিমোহিত করবে, যদি সৌরভ মনমাতানো হয়। আপনার প্রতি অনুরাগ ও শ্রদ্ধা দুটোই জন্ম নেবে। প্রতিটি পারফিউমের নিজস্ব বৈশিষ্ট্য আছে। তবে আমার বেড়ে ওঠার এই সময়ে নানা সুগন্ধি বিশ্ব মাতিয়েছে। ক্রিস্তিয়ঁ দিওরের পয়জন, ইভস সা লোরের অপিয়ম উল্লেখযোগ্য। এই প্রজন্ম হয়তো এসব পারফিউমের নাম শোনেনি। চার্লির কথাও মনে পড়ে। অবশ্য এর পর কতো কিছু যে এসেছে। আসছে এখনো। ডিজাইনারদের নামে, সেলিব্রিটিদের নামেও এখন পারফিউম বাজারে আসছে হরহামেশাই। ফলে সেসবও যথেষ্ট আকর্ষণীয়। বিশেষত তাদের ভক্তদের কাছে। যা হোক, ইভস সা লোরের আরেকটি সুগন্ধি আমাকে যথেষ্ট মোহিত করে। রিভ গশ।

নিজের পছন্দ অনুযায়ী অবশ্যই পারফিউম কিন্তু। প্রিয় সৌরভকে সঙ্গে নিয়ে চলার মাঝে নতুনকেও পরখ করে দেখতে দোষ নেই। সবাই ভালো থাকুন, সুরভিত থাকুন।

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।