অনিন্দ্যসুন্দর প্রদেশটির নিচে চাপা থাকা নিষ্পাপ শিশুদের আর্তনাদ

অনিন্দ্যসুন্দর প্রদেশটির নিচে চাপা থাকা নিষ্পাপ শিশুদের আর্তনাদ

রিপন কুমার দেঃ ব্রিটিশ কলম্বিয়া, কানাডার সর্ব পশ্চিম প্রান্তে অবস্থিত একটি প্রদেশ। প্রদেশটি পশ্চিমে প্রশান্ত মহাসাগর এবং পূর্বে রকি পর্বতমালার মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত, আর তাই পাহাড় আর সাগর ঘেরা এই প্রদেশটি। এই প্রদেশটির নাম এর আগে Beautiful শব্দটি ব্যবহার করা হয়, সচরাচর বলা হয় “Beautiful British Columbia”। গত বছর যখন এই রাজ্যটিতে সেটল হই, তার পর থেকে প্রতিদিনই বুযতে পারি, প্রদেশটির নাম এর আগে এই Beautiful শব্দটির মর্মার্থ। সত্যিকার অর্থেই চমৎকার একটি রাজ্য, যে দিকেই তাকাই ভূস্বর্গ মনে হয়। কিন্তু, গায়ে শিহরন জাগানোর মত এক ঘটনা সামনে এল গত বৃহস্পতিবার। কানাডার বহু আগে বন্ধ হয়ে যাওয়া একটি আদিবাসী স্কুলে গণকবর পাওয়ার তথ্যটি প্রকাশ্যে আসে। স্থানীয় একটি আদিবাসী সংগঠন প্রাচীন এই আবাসিক স্কুলটিতে রাডারের সাহায্যে একটি গণকবরটি শনাক্ত করে। যেখানে মিলেছে ২১৫টি শিশুর দেহাবশেষ। ভাবা যায়?

ধারনা করা হচ্ছে, যখন অষ্টাদশ শতকের শেষ থেকে উনবিংশ শতকের শুরুর দিকে কানাডায় দলে দলে ইউরোপীয়রা আসতে থাকে, তখন স্থানীয় গোষ্ঠীগুলির সঙ্গে তাঁদের সঙ্ঘাত হয়েছিল। আদি আমেরিকানদের খ্রিস্টধর্মে ধর্মান্তরিত ও ‘সভ্য’ করে তুলতে উনিশ শতকের মাঝামাঝি থেকে কানাডা জুড়ে বিভিন্ন আবাসিক স্কুল প্রতিষ্ঠা করা শুরু হয়। সেখানে তখন আদিবাসী বাচ্চাদের জোর করে তাঁদের পরিবার থেকে আলাদা করে এই স্কুলে ভর্তি করানো হত। আমাদের হিন্দু ধর্মে যেরকম বিভিন্ন ভাগ আছে, খ্রিস্টান ধর্মেও তাই, এই বিভিন্ন ভাগ এর মধ্যে সবচেয়ে কট্টরপন্থী ধরা হয়, ক্যাথলিক খ্রিস্টান মিশনারিদের, আর এরাই অর্থাৎ এই ক্যাথলিক খ্রিস্টান মিশনারিরাই কানাডা সরকারের অনুমতি নিয়ে এই স্কুলগুলি চালাতেন আর সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করতেন। তারাই আদিবাসী সকল শিশুকে জোর করে ভর্তি করাতেন আবাসিক স্কুলগুলিতে। শিশুদের ব্যাপক ভাবে শারীরিক ও যৌন নির্যাতন করতেন। শিশুদের উপর প্রতিনিয়ত চলত ভয়াবহ শারীরিক অত্যাচার। চারদিকে পাহাড় ঘেরা কামলুপস-র যে স্কুলটি থেকে এই দেহাবশেষগুলি উদ্ধার করা হয়েছে, সেটি ছিল আবাসিক স্কুলগুলুর মধ্যে সবচেয়ে বড়। আশ্চর্যের ব্যাপার হল, নজিরবিহীন এই ঘটনাটি স্কুল কর্তৃপক্ষ কোথাও নথিভুক্ত করেনি। সেই স্কুলে এত সংখ্যক শিশুর মৃত্যুর বিষয়টি কিভাবে চাপা থাকল সেটা আসলেই এক বিরাট রহস্য।

এই নির্মমতা এবং বর্বরতা বন্ধ হয়েছে অনেক আগে। কানাডা সরকার এই ঘটনাকে হৃদয়বিদারক এবং দেশের ইতিহাসের একটি লজ্জাজনক অধ্যায় বলে অভিহিত করেছে এবং সেই কৃতকর্মের জন্য ক্ষমাও চেয়েছে। স্থানীয় জনগণ ও স্কুলের শিক্ষার্থীদের স্বজনদের খোঁজ করে এ ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। অর্ধনমিত রাখা হচ্ছে জাতীয় পতাকা, স্কুলে স্কুলে পালন হচ্ছে শোক সভা। তা সত্ত্বেও, যখনই ভাবি, এই Beautiful প্রদেশটির মাটির নিচে চাপা পরে আছে শত শত নিষ্পাপ শিশুদের আর্তনাদ, মা বাবাদের কাছে যাওয়ার জন্য শিশুদের ব্যাকুল চিৎকার, তখন সত্যি গা শিউরে উঠে, চোখ দুটি ঝাপসা হয়ে আসে।

আর কোনও শিশু যেন এরকম নৃশংস নির্যাতন এর স্বীকার না হয়, আর কোনও শিশু যেন এরকম নির্মম হত্যার স্বীকার না হয়, এটাই প্রার্থনা করি।

ছবিসুত্রঃ https://search-bcarchives.royalbcmuseum.bc.ca/kamloops…

Loading…

সময়ের কথায় প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Loading…

Facebook fan page

Leave a Reply

Your email address will not be published.